March 27, 2023, 8:04 am

#
ব্রেকিং নিউজঃ
বুড়িচংয়ে সম্পত্তি বিরোধের জেরে ৫জনকে কুপিয়ে জখম; মামলা তুলে নিতে হুমকি।মহেশপুরে পুত্রের লাঠির আঘাতে পিতার মৃত্যু.জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ উপজেলা নির্বাহী অফিসার নির্বাচিত হলেন সাদিয়া ইসলাম: নড়াইল সদর।কুমিল্লায় নব-গঠিত কৃষক দলের আহবায়ক কমিটির পরিচয় সভা অনুষ্ঠিত।বাউফলে ডাকাত চিহ্নিত, মালামাল উদ্ধার হলেও প্রকাশ্যে ডাকাতদের চলাফেরা।ইশ্বরগঞ্জে ঘুমন্ত মা কে কুপিয়ে হত্যা, ঘাতক ছেলে আটক।কুমিল্লা মহানগর জাতীয়তাবাদী কৃষকদলের আহবায়ক কমিটি গঠন।কুমিল্লায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে সময়ের আলোর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন।কুমিল্লা আর্দশ সদর উপজেলার ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিদায়ী শিক্ষার্থীদের দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।বরুড়ায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর নির্বাচন অফিস ভাঙচুর।

”৯জন ভূয়া সাংবাদিক ও ০৬ জন চাঁদাবাজ গ্রেফতার”

”৯জন ভূয়া সাংবাদিক ও ০৬ জন চাঁদাবাজ গ্রেফতার”

গত ইং ৩০/০৬/২০১৯ তারিখ দুপুর অনুমান ০২.২০ ঘটিকায় ফতুল্লা মডেল থানাধীন রঘুনাথপুরস্থ সুপ্রিয়া বেগম (৫০) এর বাসায় উপরোক্ত ধৃআসামী ১) রুহুল আমিন (৪২), পিতা- আবু বক্কর সিদ্দিক, সাং- শেকের পাড়া, থানা- গোদাগাড়ী, জেলা- রাজশাহী, এ/পি সাং- পদুকাষ্ট্যান্ড, (শাহীন সাহেবের বাড়ীর ভাড়াটিয়া), থানা- বন্দর, জেলা- নারায়নগঞ্জ, ২) মোঃ বাবু সরদার (৪৪), পিতা- মৃত এমএম আঃ লতিফ, সাং- পূর্ব ইসদাইর, থানা- ফতুল্লা, জেলা- নারায়নগঞ্জ, ৩) শরিফ (৪৪), পিতা- মৃত সিদ্দিক মিয়া, সাং- পূর্ব ইসদাইর বুড়ির দোকান, থানা- ফতুল্লা, জেলা- নারায়নগঞ্জ, ৪) মোঃ সাইফুল ইসলাম (২৪), পিতা- মৃত হায়দার খান, সাং- বায়তী উত্তর পাড়া, থানা- দেবীদ্বার, জেলা- কুমিল্লা, এ/পি সাং- পঞ্চবটি চাদনী হাউজিং ফরিদ এর বাড়ীর ভাড়াটিয়া, থানা- ফতুল্লা, জেলা- নারায়নগঞ্জ, ৫) ফয়সাল (২৮), পিতা- মোঃ শাহ জালাল, সাং- বাগবাড়ি, থানা- বন্দর, জেলা- নারায়নগঞ্জগণ আসিয়া তিতাস গ্যাস ডিষ্ট্রিবিউশন কোঃ, নারায়ণগঞ্জ অফিসের কর্মকর্তা পরিচয় দেয় এবং গ্যাসের সংযোগ সহ চুলা দেখিতে চায়। তখন তিনি আসামীদের নিকট পরিচয়পত্র দেখিতে চাহিলে আসামীগন পরিচয়পত্র না দেখাইয়া বলে যে, “আপনার গ্যাস সংযোগটি অবৈধ, গ্যাসের সংযোগটি আমরা বন্ধ করে দিব, যদি সংযোগটি চালু রাখতে চান তা হইলে ৫০,০০০/- টাকা প্রদান করতে হবে”। তখন সুপ্রিয়া বেগমের আসামীদের প্রতি সন্দেহ হইলে তাহার ভাই গোলাম মেহেদী হাসান তুহিন (৪২)’কে সংবাদ দেয়। গোলাম মেহেদী হাসান তুহিন ঘটনাস্থলে আসিয়া আসামীদের দেখিয়া আসামীদের নিকট পরিচয়পত্র চাহিলে তাহারা পরিচয়পত্র না দেখাইয়া তাহার সাথে তর্ক-বিতর্ক করিতে থাকে। আসামীগন গোলাম মেহেদী হাসান তুহিন এই বলিয়া হুমকি দেয় যে, “গ্যাস সংযোগটি অবৈধ, গ্যাস সংযোগটি চালু রাখতে হলে ৫০,০০০/- টাকা চাঁদা দিতে হবে, বেশী বারাবারি করলে মামলা দিব”। তখন গোলাম মেহেদী হাসান তুহিনের আসামীদের আচরনে সন্দেহ হয় এবং স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় তাহাদের আটক করিয়া ফতুল্লা থানা পুলিশকে সংবাদ দেয়। পরবর্তীতে ফতুল্লা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছাইয়া আসামীদের ধৃত করেন। সংক্রান্তে গোলাম মেহেদী হাসান তুহিনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা রুজু করা হইয়াছে।

একই তারিখ ২০.২০ ঘটিকার সময় আমি আমার অফিস কক্ষে অবস্থান করা কালীন কথিত সাংবাদিক আসামী ১) মোঃ সেলিম নিজামী (৩৭), পিতা- মোঃ আঃ মান্নান, সাং- অশ্বদিয়া, থানা- লাকসাম, জেলা- কুমিল্লা, এ/পি সাং- ডগাইর, সারুলিয়া, (আব্দুল আউয়ালের বাড়ীর ভাড়াটিয়া), থানা- ডেমরা, ডিএমপি ঢাকা, ২) মোঃ শফিকুল ইসলাম (৩৮), পিতা- মোঃ তাহের উদ্দিন, সাং- রাজগাতি পূর্বপাড়া, থানা- নান্দাইল, জেলা- ময়মনসিংহ, এ/পি সাং- রসুলপুর (আব্দুল রব মোল্লার বাড়ীর ভাড়াটিয়া), থানা- ফতুল্লা, জেলা- নারায়ণগঞ্জ, ৩) মোঃ ইউসুফ (২১), পিতা- মৃত আবেদ আলী আকন্দ, সাং- নুরবাগ (আনিস মিয়ার বাড়ীর ভাড়াটিয়া) (ভাসমান), থানা- ফতুল্লা, জেলা- নারায়নগঞ্জ, ৪) মাসুদ মিয়া (৩৫), পিতা- মোঃ আঃ মান্নান, সাং- অশ্বদিয়া, থানা- লাকসাম, জেলা- কুমিল্লা, এ/পি সাং- ডগাইর, সারুলিয়া, (আব্দুল আউয়ালের বাড়ীর ভাড়াটিয়া), থানা- ডেমরা, ডিএমপি, ঢাকাগণ আসেন। তাহাদের মধ্যে ১নং আসামী তাহার নাম মোঃ সেলিম নিজামী দৈনিক গনজাগরণ ও অপরাধের খোঁজে চীফ রিপোর্টাস, ২নং আসামী দৈনিক গনজাগরণ ও অপরাধের খোঁজের সাংবাদিক, ৩নং আসামী ক্যামেরাম্যান ও ৪নং আসামী দৈনিক গনজাগরণ ও অপরাধের খোঁজে পত্রিকার গাড়ী চালক পরিচয় দেয়। তখন আমি তাহাদেরকে বসতে বলিলে ১নং ও ২নং আসামী টেবিলের সামনে চেয়ারে এবং ৩নং ও ৪নং আসামী আমার অফিস কক্ষে রক্ষিত সোফায় বসেন। ১নং আসামী বলেন যে, “আমি আপনাকে ইং ৩০/০৬/২০১৯ তারিখ সন্ধ্যায় আপনার সরকারী মোবাইল ফোনে ফোন দিয়েছিলাম, আমি আপনার থানার বিভিন্ন ব্যপারে আপনার সাথে কথা বলবো”। তখন কথিত সাংবাদিক ১নং আসামী তাহার হাতে থাকা মোবাইল ফোনটিতে আমার অজান্তে ভিডিও রেকর্ডিং অ্যাপস চালু করিয়া শার্টের বাম পকেটে রাখিয়া আমার সাথে বিভিন্ন কথা বার্তা বলিতে থাকে এবং ক্যামেরাম্যান ৩নং আসামীর সাথে থাকা ভিডিও ক্যামেরার উপর সবুজ চেক রুমাল দিয়া ঢাকিয়া আমার অজান্তে ভিডিও রেকর্ডিং করিয়া কৌশলে ১নং আসামী তাহার মোবাইলের ভিডিও রেকর্ডিং ও ৩নং আসামী ক্যামেরার ভিডিও রেকর্ডিং বন্ধ করিয়া দিয়া পরবর্তীতে একপর্যায়ে কথিত সাংবাদিক ১নং ও ২নং আসামী বলে যে, “আপনার থানা এলাকায় বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ধরনের অপরাধ মূলক ঘটনা সংঘটিত হইতেছে যাহা আমরা দৈনিক গনজাগরণ ও অপরাধের খোঁজে পত্রিকায় লেখা-লেখি করিলে আপনার অসুবিধা হইবে, আমরা সাংবাদিক হিসেবে আপনাকে ক্ষতি করিতে পারি, যদি আপনি আমাদের কথা মতন কাজ করেন, তবে আপনার কোন অসুবিধা হইবে না, আপনার অসুবিধা না চাহিলে আমাদেরকে প্রতি মাসে ২০,০০০/- টাকা চাঁদা দিতে হইবে, যদি চাঁদা না দেন তা হইলে আপনার বিরুদ্ধে পত্রিকায় লেখা-লেখি করিয়া আপনার ক্ষতি করিব”। ১নং আসামীর শার্টের বাম পকেটে থাকা মোবাইল ফোনটি দেখিয়া আমার সন্দেহ হইলে তাহার নিকট হইতে মোবাইল ফোনটি চাহিয়া নিয়া দেখিতে পারেন যে উক্ত মোবাইলে ১নং আসামী অসৎ উদ্দেশ্যে আমার অজান্তে কথপোকথনের ভিডিও রেকর্ড করিয়াছে ও ৩নং আসামীর কাছ থেকে ভিডিও ক্যামেরা নিয়ে দেখিতে পাই যে, উক্ত ক্যামেরা দিয়াও অসৎ উদ্দেশ্যে আমাদের দুইজনের কথপোকথনের ভিডিও রেকর্ডিং করিয়া কৌশলে ক্যামেরাটি বন্ধ করিয়া রাখিয়াছে। ১নং আসামীকে উক্ত ভিডিও রেকর্ডিংয়ের কারন জিজ্ঞাসাবাদ করিলে সে কোন সদুত্তোর দিতে পারে নাই এবং তাহাদের পত্রিকার কাগজপত্র সহ পরিচয়পত্র দেখাইতে বলিলে তাহারা কোন প্রমান সাপেক্ষ কাগজপত্র ও পরিচয় দেখাইতে পারে নাই। আসামীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে তাহারা স্বীকার করে যে, সকল আসামীগন পরস্পর একই উদ্দেশ্যে তাহাদের ব্যবহৃত মাইক্রোবাস গায়ে “অপরাধের খোঁজে” পত্রিকার ষ্টিকার লাগাইয়া সাংবাদিক পরিচয় দিয়া প্রতারনা পূর্বক গোপনে ভিডিও ধারণ করিয়া চাঁদা দাবী করে এবং ৩নং আসামী আরোও জানায় যে, তাহাকে প্রতারনার উদ্দেশ্যে গোপনে ভিডিও করার জন্য ১নং আসামী চাকুরী দিয়াছে। এ সংক্রান্তে আসামীদের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা রুজু করা হইয়াছে।

ইং ৩০/০৬/২০১৯ তারিখ বিকাল অনুমান ০৫.০০ ঘটিকার সময় ভিকটিম আবুল কালাম (৩৯), পিতা- মৃত সামাদ বেপারী, সাং- হাসনাবাদ কান্দারগাও, থানা- দাউদকান্দি, জেলা- কুমিল্লা’কে সাইনবোর্ড হইতে কৌশলে আসামী ১। মোঃ রাজু (৩৬), পিতা- মৃত মনসুর আলী, মাতা- কহিনুর বেগম, সাং- আইজগাতী, থানা- রূপসা, জেলা- খুলনা, এ/পি- গিরিধারা মাদ্রাস রোড হাজী নজরুল ইসলাম এর বাড়ীর ৭ম তলার ভাড়াটিয়া, থানা- ফতুল্লা, জেলা- নারায়ণগঞ্জ, ২। মোঃ বাদশা (৩৮), পিতা- মৃত মনসুর আলী, মাতা- কহিনুর বেগম, সাং- আইজগাতী, থানা- রূপসা, জেলা- খুলনা, এ/পি- মাছিমপুর শরিফ চৌধুরীর বাড়ীর ভাড়াটিয়া, থানা- রূপগঞ্জ, জেলা- নারায়ণগঞ্জ, ৩। মোঃ মাহাবুব (৩৫), পিতা- মৃত ইসমাইল কবিরাজ, সাং- বড় ডাইলমা, থানা- বাউফল, জেলা- পটুয়াখালী, এ/পি- মৃধা বাড়ী ছাগল পট্টি, থানা- ডেমরা, ডিএমপি, ঢাকা, ৪। মোঃ খায়রুল ইসলাম (৩৭), পিতা- মৃত ওয়াজেদ আলী, সাং- শিরমনি, থানা- খান জাহান আলী, জেলা- খুলনা, ৫। লিপি (৩০), পিতা- মোহাম্মদ আলী, ৬। রিনা (২৭), পিতা- বিরণ চন্দ্র দাস, উভয় স্বামী- মোঃ রাজু, সাং- হামছাদি, থানা- সোনারগাঁও, জেলা- নারায়ণগঞ্জ, সর্ব এ/পি- গিরিধারা মাদ্রাস রোড হাজী নজরুল ইসলাম এর বাড়ীর ৭ম তলার ভাড়াটিয়া, থানা- ফতুল্লা, জেলা- নারায়ণগঞ্জগণ ১নং আসামীর বর্তমান ভাড়াটিয়া বাসায় নিয়া যায়। ভিকটিম উক্ত বাসায় প্রবেশ করার পর পরই কোন কিছু বুঝিয়া উঠার পূর্বেই আসামীগণ তাহার সাথে থাকা একটি স্যামসাং মডেলের মোবাইল ফোন, মূল্য অনুমান ২৫,০০০/- টাকা এবং নগদ ৩,২০০/- টাকা নিয়া নেয় এবং ভিকটিমের মোবাইলের বিকাশ এ্যাকাউন্ট হইতে ১,২০০/- টাকা তুলিয়া নেয়। আসামীগণ ভিকটিমকে উল্লেখিত ঠিকানায় অন্যায়ভাবে আটক রাখিয়া তাহার নিকট ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে এবং এলোপাথারীভাবে কিল ঘুষি মারিয়া শরীরের বিভিন্ন স্থানে নীলা ফুলা জখম করে। এক পর্যায়ে ভয়ে ভিকটিম আসামীদেরকে ১ লক্ষ টাকা দিতে রাজী হই এবং তাহার বন্ধু আরমান (৩৭), পিতা- বজলুর রহমান, সাং- চর চারুয়া, থানা- দাউদকান্দি, জেলা- কুমিল্লা’কে জানাইলে আসামীদের দেওয়া বিকাশ এ্যাকাউন্টে ১০,০০০/- টাকা পাঠায় এবং আসামীদের দাবীকৃত অবশিষ্ট ৯০,০০০/- টাকা কিছুক্ষণ পরে পাঠাইবে মর্মে সময় নেয়। ভিকটিমের বন্ধু আরমান বিষয়টি অন্যান্য বন্ধুদের সহিত আলোচনা করিয়া ফতুল্লা থানা পুলিশে সহায়তায় ইং ৩০/০৬/২০১৯ তারিখ রাত্র অনুমান ০৯.৩৫ ঘটিকার সময় ১নং আসামীর বর্তমান ঠিকানার বাসা হইতে আমাকে উদ্ধার করে এবং উল্লেখিত আসামীদের গ্রেফতার করে। এ সংক্রান্তে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা রুজু করা হইয়াছে।

#

     আরো পড়ুন:

পুরাতন খবরঃ

শুক্র শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১