December 4, 2022, 6:26 pm

#
ব্রেকিং নিউজঃ
বরুড়ায় চাঁদা না দেয়ায় সৌদি প্রবাসীকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা! আশংকাজনক অবস্থায় কুমেকে ভর্তি।নিউ মিলিনিয়াম স্টুডেন্টস কিন্ডার গার্টেন অ্যাসোসিয়েশন বড় হরিপুর, বরুড়া, কুমিল্লা বৃত্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত।মুসলিম হেলফেনর ও সোশ্যাল এইড এর উদ্যোগে হতদরিদ্র ৬০০ পরিবারের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরন।সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুরে প্রতিবন্ধী দিবসে প্রচেষ্টার র‌্যালী।ফুটবল যুদ্ধে ইরানকে হারিয়ে শেষ ষোলোতে যুক্তরাষ্ট্র।খালেদ বিন ওয়ালিদ আলবি ফুল ব্রাইট স্কলার্শীপে ইউনিভার্সিটি অব আরিজোনায় পড়বে।চৌদ্দগ্রামে ব্যাটমিন্টন খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে ১ কিশোর নিহত।চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর নির্বাচনের প্রথম বর্ষপূতি উপলক্ষে জনসভা।লক্ষ্মীপুরে নিসচা ‘র প্রতিষ্ঠাবার্ষীকী পালিত ও উপহার বিতরণ।মহেশপুর শ্যামকুড়ে আন্তঃ সীমান্ত মানব পাচার প্রতিরোধ বিষয়ক মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত।

সৌদির প্রথম নারী পাইলট!

সৌদির প্রথম নারী পাইলট!

মধ্যপ্রাচ্যের রক্ষণশীল দেশ হিসেবে পরিচিত সৌদি আরব একটু একটু করে নিজের খোলস থেকে বেরিয়ে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় এবার সৌদি আরব বাণিজ্যিক বিমানে প্রথম নারী পাইলট পেল। বিমান চালানোর লাইসেন্স পাওয়ার ছয় বছর পর বাণিজ্যিক বিমান চালানোর অনুমতি পেলেন ইয়াসমিন আল মাইমানি নামের ওই নারী।
আল আরাবিয়ার খবরে বলা হয়, বৈমানিক হিসেবে জর্ডান থেকে যোগ্যতা অর্জন করার পর যুক্তরাষ্ট্রে ৩০০ ঘণ্টা বিমান ওড়ানোর রেকর্ড করেন ইয়াসমিন। ইয়াসমিন নেসমা এয়ারলাইন্সের ফার্স্ট অফিসার হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। এই এয়ারলাইন্সটি সৌদি ও মিসরের বিভিন্ন স্থানে ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকে।

গত ৯ জুন নেসমা এয়ারলাইন্সের এটিআর৭২ ফ্লাইটে পাইলট হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন ওই নারী। খুব ভালোভাবেই নিজের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। দ্য ন্যাশনালকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে ইয়াসমিন বলেন, আমি কখনও ভাবিনি যে সৌদির প্রথম নারী হিসেবে আমি বিমান চালাব। এভাবে নিজের দেশকে উপস্থাপন করার অনুভূতি সত্যিই অসাধারণ।
পাইলট হিসেবে জর্ডান এবং যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন ইয়াসমিন। ২০১৩ সালেই পাইলট হিসেবে লাইসেন্স অর্জন করেন তিনি। কিন্তু দীর্ঘ কয়েক বছর ধরেই নিজের অবস্থান তৈরির জন্য লড়াই করে যাচ্ছিলেন তিনি। কারণ সৌদিতে নারীদের গাড়ি চালানোরই কোন অনুমতি ছিল না। সেখানে বিমান চালানোতো অনেক দূরের কথা।

তবে গত বছরের জুনে নারীদের গাড়ি চালানোর ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হয়। এবার পুরুষদের পাশাপাশি পাইলট হিসেবেও কাজ করার সুযোগ পেলেন নারীরা। আর সেই ধারাবাহিকতা তৈরি করেছেন ইয়াসমিন আল মাইমানি।

গত ফেব্রুয়ারিতে ইয়াসমিনকে ট্রেইনি পাইলট হিসেবে কাজ করার প্রস্তাব দেয় নেসমা এয়ারলাইন্স। চার মাস পরে তাকে বাণিজ্যিক বিমানের পাইলট হিসেবে অনুমোদন দেয়া হয়।ইয়াসমিন বলেন, আমাকে এই সুযোগ দেয়ায় আমার কোম্পানি এবং সৌদি রাজতন্ত্রকে সাধুবাদ জানাচ্ছি। একই সঙ্গে ভিশন ২০৩০ পূরণের লক্ষ্যে নারীদের যে সব সুযোগ, সুবিধা দেয়া হচ্ছে সেটাও বেশ প্রশংসনীয়।

উল্লেখ্য, ভিশন ২০৩০ নিয়ে কাজ করছে সৌদি। রক্ষণশীল সৌদিতে ভিশন ২০৩০য়ের আওতায় দেশটিতে বড় ধরনের বেশ কিছু পরিবর্তন আনা হচ্ছে। এর নেতৃত্ব দিচ্ছেন দেশটির ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান।
এই প্রকল্পের আওতায় সাম্প্রতিক সময়ে নারীদের জন্য বেশ কিছু নতুন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। দেশের বেশিরভাগ কোম্পানিই এখন নারীদের প্রতি পূর্ণ সমর্থন দিচ্ছে এবং বিমান পরিবহন সংস্থাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজের সুযোগ পাচ্ছেন নারীরা।

#

     আরো পড়ুন:

পুরাতন খবরঃ

শুক্র শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১