January 27, 2021, 10:18 pm

#
ব্রেকিং নিউজঃ
লাকসামে মাদ্রাসা প্রিন্সিপালকে লাঞ্চিত করার ঘটনায় প্রধান ২ আসামী গ্রেফতার।কুবি শিক্ষার্থীর ছবি তুলে বিশ্বজয়।গৌরীপুরে ১শত ২টি গৃহহীন পরিবার পাচ্ছে পাকা ঘর।গৌরীপুর পৌর নির্বাচনে সাংবাদিকদের সহযোগিতা চাইলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ রফিক।সাহসী পুলিশ অফিসারের মধ্যে অন্যতম তুরাগ থানার এস আই নিয়াজ।গৌরীপুর পৌরসভা নির্বাচনে আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে প্রার্থীদের জরিমানা।সিরাজগঞ্জ ৫ উপজেলায় পৌর নির্বাচন সম্পন্ন।পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের গবেষণা সহায়তা পেলেন কুবি শিক্ষক।বেলকুচি পৌর নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী সাজ্জাদুল হক রেজা নির্বাচিত।সিরাজগঞ্জ জেলায় পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় বিজয়ী কাউন্সিলর তারিকুল ইসলাম (৪৫) নিহত।

শাহজালাল বিমানবন্দরে ফের বিশাল বোমা।

 মোল্লা তানিয়া ইসলাম তমাঃ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নির্মাণাধীন তৃতীয় টার্মিনালে মাটি খোঁড়ার সময় ২৫০ কেজি ওজনের আরও একটি জেনারেল পারপাস (জিপি) বোমা সদৃশ্য বস্তু উদ্ধার করা হয়েছে। পরীক্ষা নিরীক্ষা করে ধ্বংস করার জন্য বিমান বাহিনীর বোম্ব ডিজপোজাল ইউনিট বোমাটি নিয়ে গেছে বলে জানা গেছে। এ নিয়ে বিমানবন্দরের নির্মাণাধীন তৃতীয় টার্মিনাল থেকে একই ওজনের চারটি বোমা উদ্ধার করা হলো। সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) সকালে বোমাটি উদ্ধার করা হয় বলে বিমানবন্দর আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক মোহাম্মদ রাশেদুল ইসলাম খান নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, বিমান বন্দরের তৃতীয় টার্মিনালের কনস্ট্রাকশন সাইটে পাইলিংয়ের কাজ করার সময় আজ সকালে বোমাটি ১০ ফুট মাটির নিচ থেকে উদ্ধার করা হয়। এর আগেও একই এলাকা থেকে একই ওজনের তিনটি তাজা বোমা উদ্ধার করা হয়েছিল। পরে বোমাগুলো বিমান বাহিনীর বোম্ব ডিজপোজাল ইউনিট নিয়ে গিয়ে ধ্বংস করে। এর আগে গত ১৯ ডিসেম্বর তৃতীয় বোমাটি উদ্ধার করা হয়েছিল। ওই সময় আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর জানায়, বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনালের কনস্ট্রাকশন সাইটে পাইলিংয়ের কাজ করার সময় ১০ ফুট মাটির নিচ থেকে ২৫০ কেজি ওজনের জেনারেল পারপাস (জিপি) বোমা সদৃশ বস্তু পাওয়া যায়। বিমানবাহিনী ঘাঁটি বঙ্গবন্ধুর প্রশিক্ষিত বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দল আধুনিক যন্ত্রপাতি নিয়ে দ্রুততার সঙ্গে ঘটনাস্থলে পৌঁছে বোমাটি নিষ্ক্রিয় করে। পরে বোমাটি ধ্বংস করতে সতর্কতার সঙ্গে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়। ধারণা করা হচ্ছে উদ্ধারকৃত বোমাগুলো ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় ভূমিতে নিক্ষেপ করা হয়েছিল। এ বিষয়ে গত ১৪ ডিসেম্বর বিমান বন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন এএইচএম তৌহিদ-উল-আহসান বোমা উদ্ধারের বিষয়ে সাংবাদিকদের বলেন, বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনালের নির্মাণ কাজ চালানোর সময় উদ্ধার হওয়া ২৫০ কেজি ওজনের বোমাগুলো তাজা ছিল। মাটির অনেক গভীরে থাকায় এটি বিস্ফোরিত হয়নি। তিনি আরও বলেন, বিমানবন্দরের নির্মাণাধীন তৃতীয় টার্মিনালের কাজের সঙ্গে যারা সংশ্লিষ্ট রয়েছে, তাদের আমরা সতর্ক করে দিয়েছি যেন আবারও বোমা উদ্ধার করা হলে সেই জায়গাটি দ্রুত নিরাপত্তা বলয়ে আনা হয়। তারা যেন আগেভাগেই লোকজনকে সরিয়ে নেয়। এছাড়াও খনন কাজ করার সময় যেন শ্রমিকরা সাবধানতা অবলম্বন করে সেজন্য সব ধরণের সতর্কতামূলক উপদেশগুলো। এর আগে গত বুধবার (৯ ডিসেম্বর) ও সোমবার (১৪ ডিসেম্বর) সকালে মাটি খোঁড়ার সময় বোমা উদ্ধার করা হয়। ঘটনাস্থলে এসে বিমানবাহিনীর বোম্ব ডিজপোজাল ইউনিট বোমা দুটি নিষ্ক্রিয় করে নিয়ে যায়। পরে রসুলপুরে বিমানবাহিনীর ফায়ারিং রেঞ্জে বোম্বাগুলো ধ্বংস করে বিমানবাহিনীর বোমা নিষ্ক্রিয় বিশেষজ্ঞ দল

#

     আরো পড়ুন:

পুরাতন খবরঃ

শুক্র শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১