February 7, 2023, 6:13 pm

#
ব্রেকিং নিউজঃ
তেপান্তর গ্রুপ-এর ১৮তম বর্ষে পদার্পণ।বুড়িচংয়ে একই দিনে মাদ্রাসা শিক্ষকসহ ৩জনের আত্মহত্যা!কুমিল্লা বরুড়া উপজেলা উন্নয়ন সমিতির উদ্যোগে সহস্রাধিক শিক্ষার্থীদের মধ্যে খাবার ও কলম বিতরণ।চট্টগ্রাম আবাহনীকে ২ – ০ গোলে উড়িয়ে দিল বসুন্ধরা কিংস।আগামী জাতীয় নির্বাচনে কুমিল্লার সব আসনেই একাধিক মনোনয়নপ্রত্যাশী।এতিম গৌরাঙ্গ (১০) কে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করলো প্রধান শিক্ষক মতিয়ার।ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডুতে হত্যা মামলায় ১ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড।চন্দ্রগঞ্জে প্রয়াত আ.লীগ নেতাদের স্মরণে শোকসভা।সংসদ সদস্য ও আওয়ামীলীগ নেতা মোসলেম উদ্দিন আহমেদ-এর মূত্যুতে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীদের শোক প্রকাশ।তিতাসে সাবেক প্রধানমন্ত্রীর এপিএস মতিন খানের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন।

মনোহরগঞ্জের আব্দুল করিম হত্যা মামলার এজলাস চলাকালীন আসামির ছুরিকাঘাতে অপর আসামির মৃত্যু

মনোহরগঞ্জের আব্দুল করিম হত্যা মামলার এজলাস চলাকালীন
আসামির ছুরিকাঘাতে
অপর আসামির মৃত্যু

মোঃ হুমায়ুন কবির মানিক, কুমিল্লা প্রতিনিধি।
কুমিল্লার আদালতে মনোহরগঞ্জ উপজেলার ২০১৩ সালের ২৬ আগষ্ট সংঘটিত হত্যা মামলার এজলাস চলাকালীন বিচারকের সামনে আসামির ছুরিকাঘাতে অপর আসামির মৃত্যু হয়েছে। আজ সোমবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ৩য় আদালতে এ ঘটনা ঘটে।
নিহত আসামি ফারুক মনোহরগঞ্জ উপজেলার অহিদুল্লাহর ছেলে। পেশায় সে রাজমিস্ত্রি ছিলো। ঘাতক হাসান লাকসাম উপজেলার ভোজপাড়া গ্রামের শহীদুল্লাহর ছেলে। কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ৩য় আদালতে এজলাস চলাকালীন সময়ে মনোহরগঞ্জ উপজেলায় সংঘটিত হত্যা মামলার স্বাক্ষ গ্রহণকালে ওই মামলার আসামী হাসান অপর আসামী ফারুককে ধারালো ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়ি আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলে আসামি ফারুক মারা যান। ঘাতক হাসানকে গ্রেফতার করা হয়।
জানা যায়, ২০১৩ সালের ২৬ আগষ্ট মনোহরগঞ্জ উপজেলার নাথেরপেটুয়া ইউনিয়নের কান্দি গ্রামে সম্পত্তি বিরোধের জেরে নিজ ছেলে ও নাতীদের হাতে নির্মম ভাবে খুন হন হাজ্বী আব্দুল করিম। ওইদিনই নিহত আব্দুল করিমের স্ত্রী সাফিয়া বেগম বাদী হয়ে ৮ জনকে আসামী করে মনোহরগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ মামলার ১নং আসামী ফয়েজুল্লাহ সহ অন্য আসামীরা পলাতক রয়েছেন। নিহত ফারুক ও হাসান যথাক্রমে ৪ ও ৫ নং আসামী। সম্পর্কের দিক থেকে তারা আপন মামাতো-ফুফাতো ভাই। নিহত আব্দুল করিম যথাক্রমে তাদের আপন দাদা ও নানা ছিলেন। আজ সোমবার আসামী ফারুক ও হাসান হাজিরা দিতে আসলে আসামি হাসান বিজ্ঞ বিচারকের এজলাসে অপর আসামি ফারুককে ছুরিকাঘাত করলে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে সে মৃত্যুবরণ করে। ঘাতক হাসানকে ঘটনাস্থল থেকে আটক করে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ছোরাটি উদ্ধার করা হয়। কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ৩য় আদালতের পিপি নুরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
নিহত হাজ্বী আব্দুল করিমের ছেলে মো. মমিন উল্লাহ বলেন, ‘এর আগে আমরা আদালতে স্বাক্ষী দিতে গেলে আসামী হাসান ও অন্য আসামীরা আমাদেরকেও প্রাণনাশের হুমকি দিতো। এ নিয়ে আমি মনোহরগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরিও করেছি।’

#

     আরো পড়ুন:

পুরাতন খবরঃ

শুক্র শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮