November 17, 2019, 9:58 am

#

সাংবাদিক সম্মেলনে মিথ্যাচার নিজড়ার চেয়ারম্যান আজিজের ভন্ডামী

( নিজড়ার চিহ্নিত রাজাকার পরিবারের সন্তান চেয়ারম্যান আজিজ তথ্য গোপন করে আওয়ামীলীগের দায়িত্বশীলদের নিকট হইতে দলিয় প্রার্থী হয়ে নিজড়ার প্রতি অবহেলা, অবজ্ঞা দেখিয়ে প্রমান করেছে রাজাকারের রক্ত মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিকশিত হয় না)

আব্দুল্লাহ আল মামুন:

কয়েকদফা দুর্নীতির সংবাদ প্রকাশ হওয়াতে আবোল তাবোল প্রলাব বকছে গোপালগঞ্জ নিজড়ার ইউপি চেয়ারম্যান আজিজ । শাক দিয়ে মাছ ঢাকার ছলে নিজের চুরী-ভন্ডামী আর প্রতারনা-দুর্নীতির সাথে রাজনৈতিক মহাপুরুষ যাদের ত্যাগ আর মহিমায় এই বাংলাদেশ। পর-পর ০৮ বার নির্বাচিত সাংসদ শেখ ফজলুল করিম সেলিমকে জড়িয়ে সংবাদ সম্মেলন করে চেয়ারম্যান আজিজ মহা অপরাধ করেছে বলে জানায় উপস্থিত সকলে। তার এই মিথ্যা সংবাদ সম্মেলন সকল সাংবাদিকরা প্রত্যাখান করেছেন এবং কোন পত্রিকায় তার মিথ্যা সংবাদ সম্মেলন প্রকাশ করে নাই ।

 

(ছবি): চেয়ারম্যান আজিজ

আমরা দৈনিক আমার প্রাণের বাংলাদেশ কোথাও কোন লেখা, কোন বক্তব্যে শেখ ফজলুল করিম সেলিম সম্পর্কে ভালো ছাড়া তার উন্নয়ন ছাড়া অন্য কিছু লেখা হয়নি। সরজমিনেও খুজে পাওয়া যায়নি তার সামান্য তম কোন ভূল । নিজড়া নিয়েই কিন্তু এই মহান নেতার রাজত্ব নয়। গোপালগঞ্জসহ সর্ম্পূন দেশ নিয়ে তিনি কাজ করেন ।

নিজড়ার উন্নয়নের জন্য তো চেয়ারম্যান আজিজকে দায়িত্বদেন, কিন্তু ভন্ড আজিজ তার সরলতার সুযোগ নিয়ে নিজড়ার রাস্তা-ঘাটের কাজের কোন যথাযথ ব্যবস্থা না নিয়ে অবহেলা অবজ্ঞা করে বিশ্বাসের ঘরে ডাকাতী করেছে বলে এলাকায় অভিযোগ উঠেছে। দুর্নীতি যেই করবে তার আসল স্বরুপ জাতীর সামনে উম্মোচিত হবে সে যেই হোক এমনটাই-দুর্নীতির বিরুদ্ধে ঘোষনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

একজন আজিজ, একজন চেয়ারম্যান, একটি নিজড়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য, আপনার সমর্থন যেই দলের হোক আপনি স্বাধীন স্বার্বভৌম গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশে বাস করেন। আপনি জনগনের নির্বাচিত প্রতিনিধি। আপনি জবাবদিহিতার বাহিরে নন। আপনি দুর্নীতি করবেন , ভন্ডামী করবেন, প্রতারনা করবেন , প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের গরীবেব বাজেট আত্মসাত করবেন, আর আপনার চুরীর কথা লেখা যাবে না, আপনার খুটীর জোড় কোথায় ।

মুখে জয় বাংলার শ্লোগান দিয়ে নিজের শতভাগ অপকর্ম শেখ পরিবারের উপড় চাপাবেন আর জাতী তা বিশ্বাস করবে, আপনি নিজেকে কি ভাবেন, আপনি সাংবাদিক সম্মেলনে বলতে পারতেন যত তাড়াতাড়ী পারি সব কাজ সম্পূর্ণ করবো,ভবিষৎতে আর কোন দুর্নীতি যেন আমার নির্বাচনী এলাকায় না হয় তার ব্যবস্থা নিবো। উল্টো এমন একটা ভাব নিয়ে কথা বললেন যেন আটবারের নির্বাচিত সাংসদ শেখ ফজলুল করিম সেলিম সাংবাদিকদের ভূল বোঝেন। আপনি কি মনে করেন আপনার এই চালাকী বোঝার মতো তার জ্ঞান নাই।

আমরা শেখ ফজলুল করিম সেলিম এর নিজড়ার উন্নতির কথা বলছি। আমরা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম স্থান গোপালগঞ্জের অর্ন্তভুক্ত নিজড়ার মানুষের কথা বলছি । আপনার বাব-চাচা সবাই রাজাকার নয় আপনি বুকে হাত দিয়ে বলতে পারবেন। এই কথা গুলো আমাদের নয় নিজড়ার সাদা-পাকা দাড়িওয়ালা বৃদ্ধদের, অনেক মন্দিরের পুরোহিতদের যারা দেখেছে আপনার বাব-চাচাকে রাজাকারের চরিত্রে।

এখন আওয়ামীলীগের উন্নয়নের জোয়ারে, জয় বাংলার তোকমা লাগিয়ে জাতীকে ধোকা দেওয়ার দিন শেষ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব বুঝতে পেরে মুখোশধারী আওয়ামীলীগ আর হাইব্রিট নেতার লিষ্ট করার প্রক্রিয়া শুরু করেছেন, আসছে ভূয়া মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা। জাতি আজ স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তিত্বে রুপান্তর হয়ে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে এক প্লাটফর্মে । সাধু সাবধান, আগে সোনার বাংলা ভন্ড-প্রতারক চোরের জায়গা আস্তাকুঁড়ে বঙ্গবন্ধুর জন্মস্থানে নয়।

 

#

     আরো পড়ুন:

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০