August 10, 2020, 11:45 am

#
ব্রেকিং নিউজঃ
মনোহরগঞ্জ আমতলী গ্রামের শাশুড়ী মিথ্যা অভিযোগ লাকসামে শাশুড়ীর মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদ জানালেন ভুক্তভোগী জামাতা।লাকসামে র‍্যাবের অভিযানে ভুয়া ডাক্তার কে মোবাইল কোটে সাজা ও ১টি প্রতিষ্ঠান সীলগালা.মাহবুব কবির মিলনকে ওএসডি করা আর সৎ কর্মকর্তাদের ’অশনি সংকেত’ দেখানো এককথা.লাকসামে কিশোরী মেয়ে কে ধর্ষনের চেষ্টা, থানায় অভিযোগ করায় পরিবারের উপর হামলা.টেকনাফে সাংবাদিক মোস্তাফার চোখে মরিচের গুঁড়া দিয়ে নির্যাতন করেন ওসি প্রদীপ কুমার দাস!!পটুয়াখালীতে শ্রীশ্রী হরি-গুরুচাঁদ মন্দিরে মাসিক শান্তি সেবা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত.শিবগঞ্জে উপজেলা পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক জিয়াউল হকনাসিরনগরে হতদরিদ্রের মাঝে রিং স্লাব বিতরণপটুয়াখালীতে পান চাষীরা হতাশায় দিন কাটাচ্ছে।নানান অপকর্মের দায়ে দৈনিক মানবধিকার ক্রাইম বার্তা থেকে প্রতিনিধি বরখাস্ত।।

তুরাগ পাড়ের জমি দখলমুক্ত করার নির্দেশ!!

তুরাগ পাড়ের জমি দখলমুক্ত করার নির্দেশ

মোল্লা তানিয়া ইসলাম তমাঃ

রাজধানীর উত্তর সীমান্তের শেষে তুরাগ নদের জমি দখল করে হামীম গ্রুপের নিশাত জুট মিলস লিমিটেড ও আনোয়ার গ্রুপের হোসাইন ডায়িং অ্যান্ড প্রিন্টিং মিলস লিমিটেড স্থাপনা নির্মাণকে অবৈধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ । একই সঙ্গে আভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষকে (বিআইডব্লিউটিএ) তুরাগ নদের মধ্যে অবৈধভাবে গড়ে তোলা স্থাপনা দুটি উচ্ছেদ করতে নির্দেশ দিয়েছেন । মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারি) প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বিভাগের ফুল কোর্ট এ রায় দেন। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের পক্ষে এক রিট মামলার আদেশকে চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এ রায় দিয়েছেন আপিল বিভাগ। আদালতে হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। নিশাত জুট মিলস’র পক্ষে ছিলেন আইনজীবী রোকন উদ্দিন মাহমুদ ও আসাদুজ্জামান এবং হোসাইন ডায়িং এন্ড প্রিন্টিং মিলস লিমিটেডের পক্ষে ছিলেন মেহেদী হাসান। বিআইডব্লিউটিএ’র পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মফিজুর রহমান। রায়ের বিষয়টি এই প্রতিবেদককে নিশ্চিত করেছেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। তিনি বলেন, ‘নিশাত জুট মিলস ও হোসাইন ডায়িং এন্ড প্রিন্টিং মিলস লিমিটেড অবৈধভাবে তুরাগ নদের জমি দখল করে স্থাপনা নির্মাণ করেছিল । ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ইং সুপ্রিম কোর্টের চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ তুরাগ নদের জমিতে এ দুটি স্থাপনা নির্মাণকে অবৈধ ঘোষণা করেছেন। একইসঙ্গে এ দুটি কোম্পানির স্থাপনা ভেঙ্গে দিতে বিআইডব্লিউটিএকে নির্দেশ দিয়েছেন।’ আপিল বিভাগ নিশাত জুট মিলস লিমিটেড ও আনোয়ার গ্রুপের হোসাইন ডায়িং এন্ড প্রিন্টিং মিলস লিমিটেডের পৃথক দুটি আবেদন নিস্পত্তি করে এ রায় দিয়েছেন। এর ফলে তুরাগ নদের জমি দখল করে নির্মাণ করা স্থাপনা ভেঙ্গে ফেলতে বিআইডব্লিউটিএর আর কোনো বাধা রইল না। এর আগে মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস এন্ড পিস ফর বাংলাদেশের পক্ষে করা এক রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৯ সালে ৩ ফেব্রুয়ারি তুরাগ নদীকে ব্যক্তি-আইনি সত্তা বা জীবন্ত সত্তা ঘোষণা করে রায় দিয়েছিলেন বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ।পরে নিশাত জুট মিলস লিমিটেড ও আনোয়ার গ্রুপের হোসাইন ডায়িং এন্ড প্রিন্টিং মিলস লিমিটেড এ রায়কে চ্যালেঞ্জ করে উচ্চতর আদালতে পৃথক দুটি আবেদন করেছিল। আপিল বিভাগ ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ইং আবেদন দুটি নিষ্পত্তি করে এ রায় দেন।

#

     আরো পড়ুন:

পুরাতন খবরঃ

শুক্র শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১